গাজীপুরের কালীগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতা বেড়েছে

লেখক: Rakib hossain
প্রকাশ: 1 week ago

আলিফ আরিফা, গাজীপুর প্রতিনিধি :

প্রথমধাপে উপজেলা পরিষদে নির্বাচনে গাজীপুরের কালীগঞ্জে মোটরসাইকেল প্রতীক আমজাদ হোসেন স্বপন বিজয়ী হওয়ায় তার কর্মী সমর্থকদের ব্যাবসা প্রতিষ্ঠান,বাড়িতে হামলা চালায় ৭ মাসের অন্তর সত্তা ও বৃদ্ধাসহ ৬ জন আহত হওয়ার সংবাদ পাওয়া গেছে ।

শুধু তাই নয় নারীদের মারধরসহ শ্রীলতাহানি ঘটিয়ে নগদ টাকা স্বর্ণালংকারসহ বিভিন্ন আসবাব পত্র লুটপাট করে নিয়ে যাওয়ার ও অভিযোগ উঠেছে প্রতিপক্ষ লোকজনের বিরুদ্ধে।

আহতরা হলেন-৭ মাসের অন্তঃসত্ত্বা সালমা বেগম,তার শাশুড়ি রাশিদা বেগম, লাইলী বেগম, শিউলি বেগম তার পুত্রবধূ ঝুমি ও দোকানের কর্মচারী খোকন মিয়া ।

এ ব্যাপারে নব নির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান আমজাদ হোসেন স্বপন এই প্রতিবেদককে জানান ঘটনাটি খুবই দুঃখজনক ! নির্বাচনে হার-জিত থাকবেই। দাঙ্গা হাঙ্গামা বন্ধ করে মিলে মিশে একটি আধুনিক কালীগঞ্জ গড়তে চাই।

এ বিষয়ে মুক্তারপুর ইউপি সদস্য ও ব্যাবসায়ী শেখ মোহাম্মদ শামসুল আলম বাদী হয়ে ১৮ জনের নাম উল্লেখসহ আরো ১০ -১২ জনকে আসামি করে কালীগঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

অভিযোগ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ইউপি সদস্য শেখ মোঃ শামসুল আলম তার কর্মী সমর্থকদের নিয়ে মোটরসাইকেল প্রতীকের নির্বাচন করেন। প্রতিক বরাদ্দের পর থেকেই প্রতিপক্ষের লোকজনের হুমকি দিয়ে আসছিল। নির্বাচনের জেরে ৯ মে২০২৪ইং রাতে উপজেলার মোক্তারপুর ইউনিয়নের সোহেল, সোহান, রায়হান, ইলিয়াস, সোহাগ, মোহাম্মদ আলী, মাহমুদুল, রিফাত মোস্তফা,সাখাওয়াত প্রধান, সাঈদ প্রধান,

হাবিবুর রহমান ওরফে হাবু, ইমন, শাহিন, আশিক, কাউছার, সোহরাব, সাইফুল, শাহিনসহ আরো অজ্ঞাত নামা ১০-১২ জন দেশীয় অস্ত্র দা ছেন, চাইনিজ কুড়াল, চাপাতি ও লাঠি সোটা নিয়ে বৃহস্পতিবার রাত আটটার দিকে একতা বাজারে মেম্বারের ক্রাউন সিমেন্টের দোকানে ঢুকে হামলা চালিয়ে দোকানের চেয়ার, টেবিল,টিভি ও মোটরসাইকেল ভাঙচুর করে প্রায় দেড় লক্ষ্য টাকার ক্ষতি সাধন করে ।

এ সময় দোকানের ক্যাশ ভেঙ্গে ৫ লাখ ৩০ হাজার টাকা লুটপাত করে নিয়ে যায়।

পরবর্তীতে একই রাত আনুমানিক সোয়া ৮ টার দিকে উল্লেখিত বিবাদীগন একতা সাকিনস্থ জনৈক জাহিদুল ইসলাম প্রধানের বাড়ীতে ঢুকে অতথ্য/অশ্লীল ভাষায় গালি গালাজ করে ।

এক পর্যায় বাউন্ডারি সীমানা টিনের বেড়ায় কোপাইয়া ক্ষতি সাধন করে।

ঠিক একই রাতে আনুমানিক ৮:২০ টার সময় উল্লেখিত বিবাদীগণ মৃত ইদ্রিস আলী দারোগার বাড়ি,আমির হোসেন,রুবেল মিয়া, জয়নাল উদ্দিন বাড়িতে ঢুকে ঘরের গ্রিল,টিনের চাল ভাঙচুর করে ।

এ সময় লাইলি বেগম বাধা দিলে তাকে এলোপাতাড়ি মারধর করে স্বর্নের চেইন পঞ্চান্ন হাজার টাকা নিয়ে যায়।

অপরদিকে শামীমের বাড়িতে ঢুকে তার স্ত্রী ও মাকে এলোভাতের মারধর করে পরিহিত কাপড় টানা ছাড়া করে শ্রীলতা হানি ঘটায় ।

অভিযুক্তরা ঘরের দরজা ,জানালা ভেঙ্গে নগদ টাকাসহ তিন লাখ টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে যায় বলেও অভিযোগ রয়েছে তাদের বিরুদ্ধে।

error: Content is protected !!